Open in app

ট্রাই কালার মটনকিমা রাইস

2পর্যালোচনা
রেটিং দিন!
প্র সময়  35 min
রান্নার সময়  30 min
পরিবেশন করা  6 people
Sanchari Karmakar18th Jun 2018
  • মটন কিমা তৈরির উপকরণ :
  • মটন ৫০০ গ্রাম
  • টক দই ৩ চামচ
  • পেঁয়াজ কুচি ১ টা মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ
  • পেঁয়াজ, আদা, রসুনের পেস্ট ১ বাটি (১টা বড় পেঁয়াজ,রসুন ১০/১২ কোয়া, আদা ১/২ ইঞ্চি টুকরো)
  • নুন স্বাদ মত
  • চিনি ১ চামচ
  • হলুদ ১চামচ
  • জিরে গুড়ো ১চামচ
  • ধনে গুড়ো ১চামচ
  • লংকা গুড়ো ১চামচ
  • শাহী গরম মশলা ১ চামচ
  • ঘি ১ চামচ
  • জল ১/২ কাপ
  • সর্ষের তেল ৪ চামচ
  • ভাত তৈরির উপকরণ :
  • বাসমতী চাল ৯০০ গ্রাম (আধ ঘন্টা জলে ভিজেয়ে রাখা)
  • নুন পরিমান মত (ভাত রান্নার সময়ে মিশিয়ে নেবার জন্য)
  • সবুজ ভাতের জন্য সবুজ রঙের পেস্টের উপকরণ :
  • ধনেপাতা ১আঁটি
  • পুদিনাপাতা ১০ - ১২ টা
  • রসুন ১ কোয়া
  • নুন স্বাদ মত
  • চিনি ১/২ চামচ
  • কমলা ভাতের জন্য কমলা পেস্টের উপকরণ :
  • গাজর ১টা টুকরো করে কাটা
  • টমেটো ১ টা টুকরো করে কাটা
  • লংকা গুড়ো ১চামচ
  • নুন স্বাদ মত
  • চিনি ১/২ চামচ
  • জল ৩ থেকে ৪ চামচ
  • অন্যান্য উপকরণ :
  • সানফ্লাওয়ার তেল ৩ চামচ
  • দারচিনি ছোট ১ টুকরো
  • এলাচ ১টা (ফাটিয়ে নেওয়া)
  • লবঙ্গ ১ টা
  • নুন পরিমান মত
  • চিনি ৩ চামচ
  • ঘি ২ চামচ
  • গার্নিশিং এর জন্য আমি ব্যবহার করেছি :
  • গাজর লম্বা করে কাটা কয়েক পিস
  • শশা লম্বা করে কাটা কয়েক পিস
  • পেঁয়াজ গোল করে কাটা কয়েক টা।
  • ধনেপাতা ১/২ আঁটি
  • পুদিনাপাতা কয়েকটা।
  • স্টার এনিস ১টা
  1. ভালো করে জল ফুটিয়ে জলে ভেজানো চাল টা, পর্যাপ্ত পরিমান নুন দিয়ে ৮৫% ফুটিয়ে ভাত রান্না করে ফ্যান গেলে নিতে হবে।
  2. এবারে সবুজ পেস্ট টা তৈরির জন্য মিক্সিতে ধনেপাতা, পুদিনা পাতা, ১ কোয়া রসুন, স্বাদমত নুন, চিনি দিয়ে প্রয়োজনে সামান্য জল ব্যবহার করে ব্লেন্ড করে সবুজ পেস্ট বানাতে হবে।
  3. কমলা পেস্ট তৈরির জন্য মিক্সিতে গাজরের টুকরো, টমেটো, লংকা গুড়ো, নুন, চিনি দিয়ে, প্রয়োজনে জল ব্যবহার করে ভাল মত ব্লেন্ড করে কমলা পেস্ট বানাতে হবে
  4. মটনের কিমায় টক দই মাখিয়ে কিছুক্ষন রেখে দিতে হবে ঢাকা দিয়ে
  5. এবারে রান্না করা ভাত টা ৩ টে আলাদা বাটিতে সমান তিনটে ভাগ করে রাখতে হবে।
  6. এবারে মটনের কিমা টা কষানোর জন্য গ্যাসে কড়াই বসিয়ে ৪ চামচ তেল দিয়ে গরম করতে হবে।
  7. তেল গরম হয়ে গেলে কুচানো পেঁয়াজ টা দিতে হবে
  8. পেঁয়াজ নরম হয়ে আসলে দই মাখানো মটনের কিমা টা দিয়ে কষাতে হবে কিমার জল টানা অবধি।
  9. এবারে একে একে কিমা কষানোর বাকি মশলা গুলি পেঁয়াজ, আদা, রসুনের পেস্ট, জিরে, ধনে,লংকারগুড়ো, হলুদ, শাহী গরম মশলা দিতে হবে নুন ও চিনি সহ।
  10. কিমা কষানোর তেল বেরিয়ে আসতে শুরু হলে জল টা দিয়ে কিমা টা সেদ্ধ হবার জন্য ঢাকা দিয়ে দিতে হবে কম আঁচ করে।
  11. কিমার জল একদম শুকিয়ে টেনে গেলে ১চামচ ঘি দিয়ে মিশিয়ে অন্য একটা পাত্রে নামিয়ে নিতে হবে।
  12. এবারে সাদা ভাগের ভাত রান্নার জন্য গ্যাসে একটা ফ্রায়িং প্যান বসিয়ে ১ চামচ তেল গরম করে দারচিনি, এলাচ লবঙ্গ দিতে হবে
  13. এর থেকে হাল্কা গন্ধ আসতে শুরু হলে ভাগ করে রাখা ভাতের বাটির ১ নম্বর বাটি নিয়ে তার থেকে অর্ধেক টা সাদা ঝরঝরে ভাত প্যানে দিতে হবে, বাকি অর্ধেক ভাত বাটিতেই আলাদা করে সরিয়ে রাখতে হবে, ভাতের স্তর তৈরির সময়ের জন্য।
  14. এবারে ৩ চামচ পরিমান মত কষানো কিমা সাদা ভাতে দিতে হবে।
  15. স্বাদ মত সামান্য নুন, আর ১চামচ চিনি দিয়ে খুন্তির সাহায্যে সাবধানে এমন করে নাড়তে হবে যাতে ভাত ভেঙে না যায় আর কষানো কিমার রঙ যেন ভাতে সেভাবে মিশে হলদেটে না হয়ে যায়।
  16. শুকনো ভাব হয়ে গেলে নামিয়ে অন্য একটা পাত্রে রেখে দিলে সাদা অংশের ভাত তৈরি হয়ে যাবে।
  17. এবারে প্যান টা আবার গ্যাসে বসিয়ে ১ চামচ তেল গরম করতে হবে।
  18. ২ নম্বর বাটির ভাগ করা সাদা ভাত, গাজর, টমেটো দিয়ে বানানো কমলা রঙের পেস্ট আর ৩ চামচ কষানো কিমা দিয়ে আগের মত হাল্কা ভাবে নাড়তে হবে সাবধানে যাতে ভাত ভেঙে না যায় কিন্তু কমলা রঙের ভাব পুরো ভাতেই মিশে যায়।
  19. স্বাদ মত সামান্য নুন, ১চামচ চিনি দিয়ে নেড়ে ভালো করে টানিয়ে নিয়ে কমলা রঙের ভাত বানাতে হবে
  20. এবারে নামিয়ে নিয়ে আলাদা বাটিতে রেখে দিতে হবে।
  21. এবারে সবুজ রঙের ভাত বানানোর জন্য আবার প্যান টা গ্যাসে বসিয়ে ১চামচ তেল গরম করে তাতে পুদিনা, ধনেপাতার তৈরি পেস্ট টা দিতে হবে।
  22. এবারে ভাগ করে রাখা ৩ নম্বর বাটির ভাত টা দিয়ে মেশাতে হবে।
  23. এর থেকে কিছুটা রস টানতে শুরু হলে কষানো কিমা ৩ চামচ মত দিয়ে স্বাদ মত নুন আর ১চামচ চিনি দিয়ে ভালো করে সাবধানে মিশিয়ে নিতে হবে
  24. পুরোপুরি শুকনো ভাব হয়ে গেলে নামিয়ে আলাদা আলাদা পাত্রে রাখতে হবে।
  25. এইভাবে আমাদের তিন ধাপের ঝরঝরে তিন রঙের ভাত তৈরি করে নিতে হবে।
  26. এবারে একটা মাইক্রো সেফ পাত্রে প্রথমে কমলা রঙের ভাতের স্তর করতে হবে, সেটা একটা বড় চামচের পিছন দিক দিয়ে চারিদিকে সমান ভাবে আলতো চেপে চেপে বসাতে হবে ৩ থেকে ৪ " পুরু করে।
  27. এবারে এই কমলা ভাতের স্তরের উপরে কিছুটা কষানো কিমার প্রলেপ ছড়িয়ে দিতে হবে।
  28. এবারে ২ নম্বর স্তরের জন্য আলাদা করে সরিয়ে রাখা কোন কিছু না মেশানো সাদা ভাত টা চারধার দিয়ে ৩ থেকে ৪ " পুরু করে আগে চামচ দিয়ে চেপে বসিয়ে তার মাঝের অংশে কিমা মেশানো সাদা ভাতটা দিতে হবে, (এভাবে বসানোর কারন হল, যাতে বাইরের দিক থেকে সাদা অংশ টা ভালো মতন সাদা দেখতেই লাগে)
  29. তিন নম্বর স্তরের জন্য একই ভাবে ৩ থেকে ৪" পুরু করে চামচ দিয়ে চেপে চেপে বসাতে হবে (এইভাবে চেপে বসানোর উদ্দেশ্য হল যখন ভাত টা থালায় রাখা হবে তখন সব ভাতের স্তর গুলিকে আলাদা ভাবেই বোঝা যাবে)
  30. এবারে বেশ কিছুটা কষানো কিমা আর ২ চামচ ঘি উপরে চারিদিকে ছড়িয়ে দিতে হবে।
  31. এবারে বাটির ঢাকনা লাগিয়ে মাইক্রো ওভেনে দিতে হবে
  32. ওভেনের সুইচ অন করে ১০ মিনিটের জন্য রান্না করতে হবে পূর্ন তাপমাত্রায়।
  33. ১০ মিনিট পরে নামিয়ে নিয়ে ২ থেকে ৩ মিনিট পরে ঢাকা খুলে দিতে হবে বাটির।
  34. এবারে বাটির উপরে,বাটির থেকে একটু বড় সাইজের প্লেট উল্টো করে বসাতে হবে
  35. প্লেটের উপরে একটা হাত রেখে খুব সাবধানে উলটে দিতে হবে বাটি টা।
  36. এবারে আস্তে করে মাইক্রো সেফ বাটিটা প্লেট এর উপর থেকে তুলে নিতে হবে।
  37. তিন রঙের স্তরের কিমা রাইস অবশেষে একদম নিচে সবুজ ভাত, মাঝে সাদা ভাত, আর একদম উপরে কমলা বা গেরুয়া ভাতের স্তর তৈরি হয়ে যাবে।
  38. কমলা রঙের ভাতের উপরিভাগে কিছুটা রান্না করা কিমা দিতে হবে।
  39. এবারে নিজের পছন্দ মত সুন্দর করে সাজিয়ে নিয়ে পরিবেশনের জন্য তৈরি হয়ে যাবে, বাজার চলতি কেমিক্যাল রঙ বিহীনই সুন্দর ও সুস্বাদু ট্রাই কালার মাটন কিমা রাইস।

Ranjit Karmakar2 months ago

sooo delicious!!! :ok_hand:

Subhankar Roy2 months ago

Uff jive jol
  • ট্রাই কালার রাইস

    2 likes
  • ট্রাই কালার ধোকলা

    2 likes
  • ট্রাই কালার গোলা রুটি

    6 likes
  • ট্রাই কালার স্যান্ডউইচ

    1 likes