Search

Home / Uncategorized / ৭ টি খুব শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক  !

৭ টি খুব শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক  !

Tanuja Acharya | ডিসেম্বর 19, 2018

যখন আমরা বিভিন্ন রোগের দ্বারা আক্রান্ত হই যেমন ভাইরাল জ্বর বা ফ্লু তখন চিকিৎসক আমাদের অ্যান্টিবায়োটিক দেন , কিন্তু আপনি কি জানেন এমন কিছু খাদ্য আছে যা প্রাকৃতিক ভাবে আমাদের শরীরে অ্যান্টিবায়োটিক এর কাজ করে ? !

এখানে কিছু তেমনই শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক এর অনুসন্ধান দেওয়া হলো-

 

১। হলুদ

হলুদ ভারতীয় রান্নায় ব্যবহার করা হয় প্রাচীন যুগ থেকে । হলু্দে যে কারকিউমিন নামে একটি পদার্থ আছে যা একে খুব কার্যকারী অ্যান্টিবায়োটিক বানিয়েছে যা প্রাকৃতিক ভাবে পাওয়া যায় । হলুদ খুব তাড়াতাড়ি ক্ষত সারিয়ে তোলে আর এবং জীবাণুমুক্ত করে ।

 

২। রসুন

রসুনে আছে অ্যালিসিন যা রসুন কে শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক বানিয়েছে  , এর সাথেও রসুনে আছে বিরোধী ভাইরাল , বিরোধী ফাংগাল , অ্যাণ্টীমাইক্রবিয়াল বৈশিষ্ট্য । এতে আছে উচ্চ মাত্রায় প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট , রসুনে আছে শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা ।

 

৩। আদা

বৈজ্ঞানিক সম্প্রদায় রসুন কে আরও একটা প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক রুপে স্বীকৃতি দিয়েছেন । অনেক বৈজ্ঞানিক গবেষণায় বার বার উঠে এসেছে আদার প্রাকৃতিক গুন যা জীবাণু কে দমন করতে সক্ষম । আদা ব্যবহৃত হয় শরীরের জীবাণুর সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে ।

 

৪। পেঁয়াজ

পেঁয়াজ হল খুব সমৃদ্ধ উৎস অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এর । অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীর কে রক্ষা করে মৌলে থেকে যার ফলে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা শক্তিশালী হয় ।

 

৫। মধু

মধু হল প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক যা প্রাচীন কাল থেকে ব্যবহৃত হচ্ছে। মধু তে আছে নানা রকম স্বাস্থ্যকর গুনাগুন । এটা অনেকদিন ধরে থাকা ক্ষত এবং পোড়া সারিয়ে তোলে আর শরীর থেকে সংক্রমণ বার করে দেয় ।

 

৬। আপেল সিডার ভিনিগার

আপেল সিডার ভিনিগারে আছে এসিটিক অ্যাসিড , ম্যালিক অ্যাসিড , খনিজ লবন , অ্যামিনো অ্যাসিড আর ভিটামিন । এই সবের উপস্থিতি আপেল সিডার ভিনিগার কে আরও বেশি শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক বানিয়েছে ।

 

৭। হর্স র‍্যাডিস ( মুলা )

অন্যান্য মশালের তুলনায়, হর্সারডিশ রুটের মধ্যে সর্বোচ্চ পরিমাণে সক্রিয় যৌগ রয়েছে- যা সব অত্যন্ত কার্যকরী। হর্স র‍্যাডিস এর গোঁড়া জ্বালানি ভাব কমায় , জীবাণুর সাথে আর ভাইরাসের সাথে লড়ে আর রোগ প্রতিরোধক ব্যবস্থাপনা কে উদ্দীপিত করে ।

ওপরের উল্লিখিত অ্যান্টিবায়োটিক অতন্ত্য শক্তিশালী আর উপকারী । এই অ্যান্টিবায়োটিক এর ভালো দিক হল এই গুলো ১০০ভাগ প্রাকৃতিক ।

 

Tanuja Acharya

BLOG TAGS

Uncategorized

COMMENTS (0)

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।