Search

Home / Uncategorized / আপনি কি কখনও গেছেন এই ৭টি রহস্যময় মন্দিরে ?

আপনি কি কখনও গেছেন এই ৭টি রহস্যময় মন্দিরে ?

Tanuja Acharya | সেপ্টেম্বর 14, 2018

ভারতবর্ষ মন্দিরের দেশ বলে বিখ্যাত । হিন্দুরা  প্রায় ৩৩ কোটি দেব দেবী কে উপাসনা করে , তাই ভারতের অলি গলি তে  অসংখ্য মন্দির দেখে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই । বেশির ভাগ মন্দিরের তার নিজস্ব বৈশিষ্ট্য আছে ভক্তদের কাছে আনার কিন্তু এর মধ্যেও এমন কিছু মন্দির আছে যা রহস্যে ঘেরা এবং এই জন্যই তার জনপ্রিয়তা ।

এখনে ৭ খানা এমন কিছু রহস্যে ঘেরা মন্দিরের বর্ণনা দেওয়া আছে যা আপনাকে স্তম্ভিত করে দেবে ।

 

১। নিধি বন মন্দির , উত্তর প্রদেশ

এই বন শ্রীকৃষ্ণ কে উৎসর্গ করা হয়েছে , এখানকার মন্দির রঙ মহল এর চত্বর চির সবুজ বনে ঘেরা । এই বনের গাছ চির সবুজ থাকে সারা বছর ধরে , সে জল এর অভাব দেখা দিলেও বা গাছ ফাঁপা হয়েও গেলেও ।

এটা বিশ্বাস করা হয় রাধা কৃষ্ণ প্রতি রাতে এই মন্দিরে আসে , “রাস লীলা “করে আর এই গাছ গুলো আসলে “গোপী “ যারা ওনাদের সঙ্গ দেন । রাতে নূপুরের শব্দ সোনা যায় আর আলো দেখা যায় বনের মধ্যে । কেউ যদি কখনও সেটা দেখার চেষ্টা করে তাহলে সে অন্ধ , বা মানসিক ভারসাম্য হারায় বা তার মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে ।  

 

২। তিরুমালা ভেঙ্কটেশ্বর মন্দির, অন্ধ্র প্রদেশ

এই মন্দিরের মধ্যে প্রভু বালাজির মূর্তি ১১০ ডিগ্রি ফারেনহাইটের একটি স্থায়ী তাপমাত্রায় রয়েছে।  উপরন্তু শীতকালে এই মূর্তি তে ঘাম দেখা যায় , কোনও বিজ্ঞানী আজ পর্যন্ত এর ব্যাখ্যা দিতে সক্ষম হননি।

 

৩। বীরভদ্র মন্দির , অন্ধ্র প্রদেশ

যদিও এই মন্দিরে মোট ৭০ টা স্তম্ভ আছে , কিন্তু তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল একটা ঝুলন্ত স্তম্ভ । এই স্তম্ভ মাটি স্পর্শ করেনা । যে সব শরণার্থীরা আসে তারা এই স্তম্ভের তলা দিয়ে কাপড় বা কাগজ গলিয়ে এর সত্যতা পরীক্ষা করার চেষ্টা করে ।

 

৪। পুরীর জগন্নাথ মন্দির , উড়িষ্যা

পুরীর জগন্নাথ মন্দির প্রচুর আশ্চর্যজনক ঘটনার সাথে যুক্ত । কেউ এখনও বোঝাতে সক্ষম হয় নি কেন পুরীর মন্দিরের চূড়ার পতাকা হাওয়ার বিপরীত দিকে ওড়ে । কেন কেউ মন্দিরের প্রধান গম্বুজের ছায়া দিনে কোনও সময় দেখতে পায় না । মহাপ্রসাদ যখন রান্না হয় তখন ৭ টা হাড়ি একের ওপর এক রাখা থাকে কিন্তু যেটা সব থেকে ওপরে থাকে সেটা আগে রান্না হয় আর যে হাড়ি টা নিচে থাকে সেটা সব শেষে রান্না হয় । প্রতিদিন এক পরিমানের ভোগ রান্না হয় এবং সেই ভোগ মন্দিরে আসা সমস্ত ভক্তগণ কে দেওয়া হয় , সেই ভক্তগণ এর সংখ্যা হাজারে হোক কি লাখে , না কোনদিন ভোগ কম পরে না কোনোদিন বাড়তি থাকে ।

 

৫। অনন্ত পদ্মনাভ স্বামী মন্দির , কেরালা

এই হিন্দু মন্দিরে ৭ টি গুপ্ত কক্ষ আছে । যদিও ৬ টি কক্ষ খোলা হয়েছে মাননীয় সুপ্রিম কোটের অনুরোধে , কিন্তু একটা কক্ষ এখনও খোলা হয় নি । যদিও এই কক্ষের কোনও তালা বা ছিটকানি নেই , এটা বিশ্বাস করা হয় এই কক্ষ কোনও গুপ্ত মন্ত্রের দ্বারা খুলবে । এটাও বিশ্বাস করা হয় যদি কোনোভাবে এই দ্বার খোলা হয় তাহলে এর ফল মারাত্মক হবে ।

৬। কামাখ্যা দেবী মন্দির , আসাম

৫১ শক্তিপীঠের সব থেকে পুরনো এই মন্দির । এই মন্দিরে সতী মায়ের যোনি পরেছে আর সেটা লাল শাড়ি দিয়ে ঢাকা থাকে । প্রত্যেক বর্ষাকালে যখন মায়ের ঋতুস্রাব হয় তখন মন্দির বন্ধ থাকে ৩ দিন । এই সময় মন্দিরের অন্তর গর্ভে বয়ে চলা জলের ধারা লাল হয়ে যায় ।

 

৭। জ্বালাজি মন্দির , হিমাচল প্রদেশ

এই মন্দির সতী মাকে উৎসর্গ করা , এই মন্দিরে অগ্নি প্রজ্বলিত আছে যেটা এক শতাব্দীর বেশি । এমন কি বিজ্ঞানীরাও এটা খুজে বের করতে পারেনি এই অগ্নি কোথা  থেকে এর জ্বালানি তেল পাচ্ছে 

এখনও অনেক এমন মন্দির আছে যা অনেক অসমাধিত রহস্য বহন করছে। এই সব মন্দির নিজের চোখে দেখে বিশ্বাস করলে জীবন সার্থক হবে ।

 

Image source- wikimapia, wikimedia, pixabay, staticflickr

Tanuja Acharya

BLOG TAGS

Uncategorized

COMMENTS (0)

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।