Search

Home / Nutrition in Bengali / ৫টি জরুরী খাদ্যবস্তু যা বাচ্চাদের প্রতিদিনকার খাবারের  অংশ হওয়া উচিত

৫টি জরুরী খাদ্যবস্তু যা বাচ্চাদের প্রতিদিনকার খাবারের  অংশ হওয়া উচিত

Tanuja Acharya | আগস্ট 6, 2018

আমরা সব অভিভাবকরা জানি বাচ্চাদের সুষম খাবার খাওয়া  উচিত, এবং এই জন্য আমরা বাচ্চাদের পুষ্টিকর খাদ্য দিয়ে থাকি । বাচ্চারা বেড়ে ওঠার সময় তাদের সঠিক মাপে পুষ্টিকর খাবার দরকার বাড়ন্ত শরীরের জন্য । আপনি আপনার বাচ্চাকে যে খাবারটি দিচ্ছেন তাতে যেন  অবশ্যই প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণ থাকে।

এখানে কিছু খাবার দেওয়া আছে যা বাচ্চাদের রোজ দিতে হবে ।

 

১। গোটা শস্য

গোটা শস্য খুব জরুরী বাড়ন্ত বাচ্চাদের জন্য । গোটা শস্য তে আছে ফাইবার, আয়রন, শর্করা বা কার্বোহাইড্রেট , এবং অন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন আর খনিজ পদার্থ ।

আপনি কি জানেন গোটা শস্য মানে কি ? একটা শস্য তখনই পরিপূর্ণ হয় যখন তার মধ্যে এই ৩ টে ভাগ থাকে — খোসা , বীজ এবং আঁশ । যখনই এই শস্য বাচ্চারা খাবে তাদের শরীরে অনেক শক্তি অর্জন হবে যা অনেকক্ষণ থাকবে । যেমন যখন গমের আটা গমকল বা মিল থেকে বেরিয়ে আসে  তখন তাতে এন্ডোক্রিন বা এন্ডস্পার্ম থাকে আর প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণ যেমন ফাইবার, ভিটামিন আর মিনারেল বেশিরভাগ নষ্ট হয়ে যায় খোসা ছাড়ানোর সময় । তাই আপনার বাচ্চার জন্য তুষ বা ভুসি যুক্ত আটা ব্যবহার করা উচিত ,অন্য গোটা শস্য যেমন ওট মিল ,যব , ভুট্টা আর লাল চালের ভাত ও খুব গুরুত্বপূর্ণ বাচ্চাদের শারীরিক বিকাশের জন্য ।

 

২। রাগি

রাগি খুব পুষ্টিকর আর স্বাস্থ্যকর শস্য যাতে আছে প্রচুর পরিমানে আয়রন আর ক্যালসিয়াম । এটা সব থেকে ভালো খাবার বাচ্চার ওজন বৃদ্ধির জন্য । রাগি তে আছে অনেক ফাইবার, ক্যালসিয়াম, প্রোটিন , ভিটামিন বি ১ , বি ২ , আর অনেক খনিজ পদার্থ । রাগি তাড়াতাড়ি হজম হয়ে যায় ,আর হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখে , রাগি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় ।

 

৩। শুষ্ক ফল  বা ড্রাই ফ্রুটস

আমাদের ঠাকুমাদের আমল থেকে এটা একটা রীতি ছোটোদের শুষ্ক ফল বা ড্রাই ফ্রুটস খাওয়ানো, বেশি করে আলমণ্ড (কাঠ বাদাম) খাওয়ানো সকাল বেলা। কারণ শুষ্ক ফল বা ড্রাই ফ্রুটস খুব স্বাস্থ্যকর ছোটোদের জন্য যা শরীর কে গরম রাখতে সাহায্য করে । রাগি রোগ আর জীবাণু কে বাচ্চাদের থেকে দূরে রাখে । শুষ্ক ফল বা ড্রাই ফ্রুটস এ আছে উচ্চ পরিমানের পুষ্টি যা শরীরের জন্য উপকারী , যেমন —  আলমণ্ড বা কাঠবাদাম এ আছে ফ্যাটি অ্যাসিড , প্রোটিন , ফাইবার , ভিটামিন ই, আর সেলেনিয়াম যা হেমোগ্লবিন বাড়তে সাহায্য করে। আলমণ্ড এর প্রোটিন বাচ্চাদের মস্তিস্ক বিকাশে সাহায্য করে ।

তেমনই আখরোট এ আছে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড যা শরীরের কলেস্টেরল কমায় আর ঘুম আসতে সাহায্য করে । একে মস্তিস্ক ফল বলা হয় কারন এতে মস্তিষ্কের বিকাশ হয় । অন্য শুষ্ক ফল বা ড্রাই ফ্রুটস যেমন পেস্তা , কাজু , কিশমিশ , খেজুর এই সব আপনার বাচ্চার সামগ্রিক উন্নয়ন এর জন্য খুবই প্রয়োজনীয় ।

 

৪। মাখানি

মাখানি তে আছে অনেক স্বাস্থ্যকর উপাদেয় আপনার বাড়ন্ত শিশুর জন্য । ১০০ গ্রাম মাখানি তে আছে ৩৫০ ক্যালোরি আর ১ আউন্স এ আছে ৫ গ্রাম প্রোটিন যা বাচ্চাদের বেড়ে ওঠার জন্য খুব ভালো পরিপোষক । শুধু ফাইবার না , মাখানি বাচ্চাদের খিদে বাড়ায় আর এতে প্রচুর ক্যালসিয়াম আছে যা হাড় মজবুত করে ।

 

৫। মিষ্টি আলু

মিষ্টি আলু তে আছে উচ্চ পরিমানে ভিটামিন এ , পটাসিয়াম , বিটা-ক্যারোটিন। এটা বাচ্চাদের জন্য খুব সুস্বাদু খাবার । মিষ্টি আলু তে আছে ভালো মাত্রায় ভিটামিন ই, ক্যালসিয়াম আর ফোলেট । খনিজ পদার্থ শরীরের মেটাবলিজম বা বিপাক প্রক্রিয়া বাড়াতে সাহায্য করে , মিষ্টি আলু তাই খুব ভালো স্বাস্থ্যের জন্য । এতে বলতে গেলে সব কিছুই আছে যেমন ক্যালসিয়াম , আয়রন , ম্যাগনেসিয়াম , ফসফরাস , পটাসিয়াম , আর সোডিয়াম আপনার বাড়ন্ত বাচ্চার জন্য ।

Images source: www.Pixabay.com, www.meylugaa.mv, www.fitnessbloggen.no, www.pxhere.com, www.wikimedia.com

Tanuja Acharya

COMMENTS (0)

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।