Search

HOME / টন্সিলের প্রদাহমূলক ব্যাধির কারণ আর লক্ষন

টন্সিলের প্রদাহমূলক ব্যাধির কারণ আর লক্ষন

Tanuja Acharya | অক্টোবর 1, 2018

BLOG TAGS

Health Information

টন্সিলের প্রদাহমূলক ব্যাধির কারণ আর লক্ষন

টন্সিল দুটো ডিম্বাকৃতির কোষ আপনার কণ্ঠনালীর পেছনে যা দেখতে লিম্ফ নডের গ্রন্থির  মতো । টনসিলগুলি আপনার গলা পিছনে লিম্ফ নোডের মতো দেখতে দুটি কোষের আকৃতির টিস্যু । এইগুলো যখন ফুলে যায় তখন এই অবস্থাটি টনসিলাইটিস নামে পরিচিত। টনসিলাইটিস দ্বারা প্রভাবিত অধিকাংশ লোক ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাস দ্বারা প্রভাবিত হয়। সুতরাং , সংক্রমণ এর উৎপত্তির উপর ভিত্তি করে , আপনার কি ধরনের চিকিৎসা হবে । বাড়াবাড়ি হলে , এমন কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে যেখানে চিকিৎসক টনসিলগুলি অস্ত্রোপচার করে অপসারণের সুপারিশ করতে পারেন , যখন অন্য কোনও ওষুধ রোগীর অসুখ সারাতে অক্ষম হয় । প্রাথমিক পর্যায়ে , গোড়ার দিকে সঠিক যত্ন নিলে টন্সিল সেরে ওঠে ।

 

টন্সিলের কারণ

টন্সিল হল আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার প্রথম অধ্যায়  যা আপনার শরীরকে যে কোনো সংক্রমণ থেকে প্রতিরোধ করে । তাই এটা খুব স্বাভাভিক যে টন্সিল আগে আক্রান্ত হয় জীবাণুর সংক্রমণে । যে ব্যাকটেরিয়ার

দ্বারা টন্সিল হয় তাকে বলে স্ট্রেপ্টোকোককাস পাইজেনস । আর যে ভাইরাস টন্সিল এর কারণ তাকে বলে এপ্সটিন – বার ভাইরাস । টন্সিলের প্রদাহমূলক ব্যাধি খুব ছোঁয়াচে তাই এটা খুব আবশ্যক এই ব্যাধি ছড়ানোকে প্রতিরোধ করার ।

অন্য কারণ টন্সিলের হল জীবাণু আর সংক্রমণ যা আশেপাশের লোকেদের থেকে আসে । বাচ্চারা বেশি আক্রান্ত হয় এই টন্সিলে বড়দের চেয়ে কারণ তারা বেশি জীবাণু আর ব্যাকটেরিয়ার সংস্পর্শে আসে । এর ফলে শ্বাস কষ্ট হয় , এই সব শারীরিক জটিলতা গুলো সময় অবিলম্বে চিকিৎসা করা দরকার।

 

টন্সি্লের  লক্ষণ

গলার নালী ফুলে যাওয়া একটা সাধারণ লক্ষন টন্সিলের প্রাথমিক অবস্থার । আরও কিছু লক্ষণ আছে যেমন –

  • কাঁপুনি দিয়ে জ্বর
  • পেট খারাপ
  • খেতে বা গিলতে গিয়ে ব্যাথা
  • সাদা বা লাল রঙের পুঁজ আর গলা ব্যাথা
  • শ্বাসকষ্ট
  • নাক ডাকা বা শ্বাস নিতে আওয়াজ হওয়া
  • ফুলে ওঠা মাংস গ্রন্থি
  • মাথা ব্যাথা
  • বার বার কান্ত হয়ে পরা
  • বাজে মুখের গন্ধ

টন্সিলের প্রাথমিক স্তরে নির্ণয় আর চিকিৎসা দরকার । টনসিল চরম পর্যায়ে পৌঁছালে আপনার কিডনির ক্ষতি হতে পারে বা এর দ্বারা আপনার প্রাণ হানির ও সংশয় হতে পারে ।

টন্সিলের  চিকিৎসা

যদি আপনি এর মধ্যে কোনও লক্ষণ দেখেন আপনার মধ্যে তাহলে শীঘ্র চিকিৎসক এর সাথে যোগাযোগ করুন ।

 

Image source:  Youtube