Search

HOME / শীতকালে কি ভাবে খুসকির সমস্যার মোকাবিলা করবেন ?

শীতকালে কি ভাবে খুসকির সমস্যার মোকাবিলা করবেন ?

Tanuja Acharya | ডিসেম্বর 10, 2018

শীতকালে এসে গেছে , সাথে চলে এসেছে বেশি করে আপনার চুলের যত্ন নেওয়ার সময় । শীতকালে বাতাসে জলীয় বাষ্প কম থাকায় আর্দ্রতার অভাবে চুল , ত্বক সব শুষ্ক হয়ে পড়ে । এই সময়ের এক বিশাল সমস্যা হলো চুলের খুসকি । যখন মাথা খুব কম বা একদম আর্দ্রতাহীন হয়ে যায় তখন এর ফলে সাদা সাদা পরত দেখা যায় মাথার চামড়ায় সেটা আর কিছু না খুসকি । সঠিক ভাবে চুলের যত্ন নিলে এই শীতকালীন খুসকি থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যেতে পারে ।

ভারতবর্ষের মতো গ্রীষ্মকালীন দেশে প্রতিদিন খাবার শেষে দই খাবার প্রচলন আছে । এক কাপ দই এর সাথে এক টুকরো লেবু আপনার মাথার চামড়ায় লাগান , এর ফলে খুব সহজেই শীতকালীন খুসকি থেকে মুক্তি পাবেন ।

এখানে কিছু সহজ উপায় দেওয়া আছে খুসকি থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার , আর আপনার মাথার চুলের এবং চামড়ার  যত্ন নেওয়ার শীতকালে অতিরিক্ত ঠাণ্ডা আবহাওায় তে –

 

১। আদা

ছোট একটা আদার টুকরো ছেঁচে নিন আর তার রস বার করে নিন । এর পর এই রস মাথায় লাগিয়ে ৩০ মিনিট রাখুন । এবার ভালো করে মাথা ধুয়ে নিন কোনো ভালো শ্যাম্পু দিয়ে । মাসে এক থেকে দুবার করুন । এতে খুসকি খুব তাড়াতাড়ি নির্মূল হয় কারণ এতে আছে ফাঙ্গাল না হওয়ার বৈশিষ্ট্য যা আপনার মাথার চামড়া  কে খুসকি থেকে মুক্ত করে ।

 

২। আপেল সিডার ভিনিগার

শুধু তিন ভাগের এক ভাগ জল সাথে আপেল সিডার ভিনিগার একটা বোতলে ভালো করে মিশ্রিত করুন , আর নিজের মাথায় ভালো করে লাগান , এক ঘণ্টা মাথায় রাখুন আর শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন । এটা খুব কার্যকারী কারণ আপেল সিডার ভিনিগারের অ্যাসিড আপনার মাথার চামড়ার পি এইচ এর স্তর এ সামঞ্জস্য রাখে আর যার ফলে খুসকি থেকে মাথা মুক্ত করে ।

 

৩। চা গাছের তেল

চা গাছের তেল বেছে  নিন আর শ্যাম্পু যা আপনার মাথার চামড়া তে আর্দ্রতা বজায় রাখে যা খুসকি হতে দেয় না , শুধু মাথায় ভালো করে চা গাছের তেল লাগান আর প্রতিদিনের মতো ভালো করে চুল ধুয়ে নিন , এটা সপ্তাহে ২ বার করুন আর পার্থক্য দেখুন ।

 

৪। বেকিং সোডা

হ্যাঁ ! আপনার রান্না ঘরেই খুব শক্তিশালী আর সহজ উপায় আছে খুসকি থেকে মুক্তি পাওয়ার । শুধু এক মুঠ বেকিং সোডা মাথায় ভালো করে ঘষে ভালো করে উষ্ণ গরম জলে ধুয়ে নিন , মনে রাখবেন শ্যাম্পু করবেন না । এতে আপনার মাথার চামড়া তে জমে থাকা ফাঙ্গাল বা জীবানু একদম নির্মূল করে আর প্রাকৃতিক তেল উৎপাদন করে ।

 

৫। অ্যালো ভেরা থেরাপি বা চিকিৎসা

অ্যালো ভেরা সব থেকে শক্তিশালী উপায় আপনার ত্বক আর চুলের সমস্যার জন্য। অ্যালো ভেরার কোমল পিণ্ড সাথে এক টুকরো লেবু নিয়ে নিয়ে মাথায় লাগান । ভালো করে মালিশ করুন আর কিছুক্ষণ রেখে দিন , মাথা ভালো করে উষ্ণ গরম জলে ধুয়ে নিন । লেবু তে আছে ফাঙ্গাল না হওয়ার বৈশিষ্ট্য আর অ্যালো ভেরা প্রাকৃতিক আর্দ্রতা আনে আর এই দুটির সম্মেলনে খুসকি প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে ।

 

কিছু আরও পরামর্শ যা আপনাকে খুসকি থেকে পরিত্রাণ পেতে সাহায্য করবে

  • গরম জলে চুল ধোবেন না – “সব সময় চুল ঠাণ্ডা বা উষ্ণ গরম জলে ধোবেন আর খুব গরম জলে স্নান করবেন না”  – এই বিজ্ঞাপন চুল বিশেষজ্ঞ জাবেদ হাবিব এর থেকে সংগ্রহীত ।
  • জলের তাপমাত্রা ছাড়াও , সপ্তাহে প্রতিদিন চুল ধোয়া থেকে বিরতি দিন । ১ থেকে ২ বার ধোবেন । এর কারণ বেশি চুল ধুলে মাথার আর্দ্রতা হারায় আর খুসকি সৃষ্টি করে ।
  • চিন্তা – নিজের চিন্তা ভাবনা কম করুন ।সঠিক আহার করুন আর প্রচুর পরিমানে জল খান
  • চুল ধোয়া – ভালো করে চুল ধুয়ে নেবেন যদি আপনি কোনও জেল বা চুলের স্প্রে লাগান । কারণ এতেও আপনার মাথায় শুষ্কতা আনে আর খুসকি সৃষ্টি করে ।
  • চুল আঁচড়ান – মনে রাখবেন দিনে অন্তত ২ বার চুল আঁচড়াবেন যাতে শুষ্ক মৃত কোষ গুলি ঝরে যায় ।

Image Source – Pixabay, Pixnio, Pxhere